প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত শরণখোলায়, রায়েন্দা বাজার লকডাউন


নইন আবু নাঈম, শরণখোলা(বাগেরহাট) : জেলার শরণখোলায় আঃ হাকিম (৬৫) নামের এক পোশাক ব্যবসায়ীর করোনা শনাক্ত হয়েছে। হাকিমই শরণখোলায় প্রথম করোনা রোগী। ঈদের মালামাল কিনতে ঢাকায় গিয়ে করোনা বহন করে আনেন তিনি।

হাকিমই শরণখোলায় প্রথম করোনা রোগী

শনিবার সন্ধ্যায় করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার পর তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এদিকে ব্যবসায়ীর শরীরে করোনা ধরা পড়ার পর রাত ৮টার দিকে উপজেলা প্রশাসনের এক জরুরি সভায় পুরো রায়েন্দা বাজার এবং ওই ব্যবসায়ীর দুটি বাড়ি অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। শরণখোলায় এই প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার খবরে এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এছাড়া ওই ব্যবসায়ীর নমুনা সংগ্রহকারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (আরএমও) ডাক্তার এস.এম ফয়সাল আহমেদ স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টিনে চলে গেছেন। শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার ফরিদা ইয়াসমিন জানান, গত ৮ মে উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের মঠেরপাড় গ্রামের মৃত ওয়াজেদ আলীর ছেলে রায়েন্দা বাজারের মান্নান সুপার মার্কেটের সিহাব গার্মেন্টসের মালিক আঃ হাকিমসহ ৬-৭ জন ব্যবসায়ী ঢাকায় ঈদের মালামাল কিনতে যান। ১১ মে সোমবার তারা ঢাকা থেকে ফিরে আসেন। এ খবর জানাজানি হলে এলাকাবাসীর চাপের মুখে তিনি মঙ্গলবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়ে গেলে বুধবার খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। শনিবার সন্ধ্যায় সেই রিপোর্টে তার করোনা পজিটিভ আসে। এ খবর পাওয়ার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ওসির সহায়তায় ওই ব্যবসায়ীকে তার দোকান থেকে তুলে নিয়ে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন বলেন, করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির পরিবার ও তিনি যাদের সংস্পর্শে এসেছেন তাদের খুঁজে বের করে নমুনা টেস্ট ও কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা হবে। জরুরি সভায় রায়েন্দা বাজার অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

শরণখোলার আরও খবর